স্থায়ী হোম অফিস করবে মাইক্রোসফট কর্মীরা

অফিসে ফিরে যাওয়া নিরাপদ মনে না হলে যে কোনো কর্মী চাইলেই ব্যবস্থাপকের অনুমতি নিয়ে স্থায়ীভাবে বাসায় থেকে কাজ করতে পারবেন মাইক্রোসফট কর্মীরা।সম্প্রতি কর্মীদের এ খবর জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। মার্কিন টেকজায়ান্ট ফেসবুক এবং টুইটারকে অনুসরণ করে মাইক্রোসফট এমন উদ্যোগ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।এর আগে প্রকাশিত নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, ৫০ শতাংশের কম কর্মীকে দূরবর্তী স্থান থেকে অফিস করার অনুমতি দেবে মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফটের মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান ক্যাথিন হোগান বলেন, গত রোববার এ ব্যবস্থাপকদের কাছে এ বিষয়ক নতুন নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনায় কর্মীদের তাদের কাজের অর্ধেক সময় বাড়ি থেকে কাজ করার সুযোগ দেয়া হয়েছে। যারা কর্মঘণ্টার অর্ধেকের বেশি সময় কাজ করতে চান, সেসব ব্যবস্থাপকদের জন্য এ সুযোগটি বিবেচনা করা হয়েছে। রয়েছে খণ্ডকালীন কাজ করার সুবিধা।আর কর্মীরা তাদের ব্যবস্থাপকদের কাছ থেকে অনুমোদন নিয়ে পুরোপুরি হোম অফিস করতে পারবেন। এমনকি তার অবস্থানও বদলাতে পারবেন। অবশ্য সে ক্ষেত্রে ভৌগোলিক অবস্থানের ভিত্তিতে কর্মীদের বেতন সমন্বয় করা হবে।প্রতিষ্ঠানটির একজন মুখপাত্র বলছেন, পরিস্থিতি পুরোপুরি নিরাপদ না হওয়া পর্যন্ত হোম অফিস সুবিধা অব্যাহত রেখে কর্মীদের সঙ্গে চলতি সপ্তাহেই একটি গাইডলাইন শেয়ার করা হয়েছে। এর লক্ষ্য হচ্ছে, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কর্মীরা যেভাবে কাজ করছে- তা বিকশিত করা। এটি কোম্পানির সংস্কৃতি ও ব্যবসায়িক চাহিদা অনুযায়ী প্রত্যেক কর্মীর ইনপুট ও উপাত্ত কাজের স্বকীয়তাকে সমর্থন এগিয়ে নেবে।কাজের এ নতুন নীতিকে ‘হাইব্রিড মডেল’ হিসেবে উল্লেখ করেছে মাইক্রোসফট। এটি টুইটার যে মডেল চালু করেছে তার মতো নয়। তবে ফেসবুকের সাম্প্রতিক রিমোট ওয়ার্ক পলিসির কাছাকাছি।

তথ্যসূত্র : যুগান্তর

About Cassie

Check Also

বিকাশে প্রতারণার পথ বন্ধ হয়ে গেল যে পদ্ধতিতে

উপহারের লোভ দেখিয়ে কিংবা নানা কৌশলে বিকাশ গ্রাহকের পিন নাম্বার জেনে নিয়ে টাকা হাতিয়ে নিতো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *